‘ইমান’ রক্ষায় অভিনয় ছাড়লেন বলিউড অভিনেত্রী

বলিউড সুপারস্টার আমির খানের ‘দঙ্গল’ সিনেমায় অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান মুসলিম অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম। তারপর একের পর এক ছবির অফার আসতে থাকে তার কাছে। গত মার্চে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সঙ্গে তার ছবি ‘দ্য স্কাই ইন পিঙ্ক’-এর শুটিংও শেষ হয়েছে। সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ভারতের প্রেস্টিজিয়াস ‘ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড’সহ কয়েকটি পুরস্কার লাভ করেছেন। ১৮ বছরের জায়রা পাঁচ বছরের ফিল্ম ক্যারিয়ারের পাঠ চুকিয়ে অভিনয়কে বিদায় জানালেন। ক্যারিয়ারের টার্নিং পয়েন্টে এসে রূপালি পর্দার আলো ঝলমলে জগত্ ছাড়ার এমন সাহসী ঘোষণায় অবাক গোটা বলিউড।

‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’ এবং ‘ইন্ডিয়া টুডে’র খবরে বলা হয়, ধর্মভীরু জায়রা জানিয়েছেন, অভিনয় ক্যারিয়ার তার বিশ্বাস এবং ধর্মের মাঝখানে এসে দাঁড়িয়েছে। ইসলামে এই ধরনের অভিনয় হারাম। অভিনয় ছাড়ার কারণ জানিয়ে গতকাল রবিবার জায়রা ওয়াসিম তার ভেরিফাইড ইন্সটাগ্রাম, ফেসবুক ও টুইটারে লিখেছেন, ‘পাঁচ বছর আগে নেওয়া সিদ্ধান্ত আমার জীবনকে বদলে দিয়েছিল। বলিউডে পা রাখার পর তুমুল জনপ্রিয়তা পাই। কিন্তু এই জগত্টা আমাকে ক্রমশ অবমাননার দিকে ঠেলে দিয়েছে, ক্রমশ অসচেতন ভাবে আমি আমার ঈমান (বিশ্বাস) থেকে বেরিয়ে এসেছি। কারণ, আমি এমন একটা পরিবেশে কাজ করতাম যা ক্রমাগত আমার ঈমানের মাঝে এসে দাঁড়াত, ধর্মের সঙ্গে আমার সম্পর্ক বিপন্ন হয়ে পড়েছিল।’

Loading...

জায়রা তার পোস্টে আরো বলেন, ‘কোরআনের ঐশ্বরিক জ্ঞানের মধ্যে আমি তৃপ্তি এবং শান্তি খুঁজে পেয়েছি। প্রকৃতপক্ষে হূদয় তার সৃষ্টিকর্তার জ্ঞান, তার গুণাবলী, তার করুণা এবং তার আদেশের জ্ঞান অর্জনে শান্তি পায়। আমি মনে করি খ্যাতি, সম্পদ যে পর্যায়ে পৌঁছে যাক না কেন, তাতে যেন কখনও শান্তি এবং নিজের বিশ্বাস না হারিয়ে যায়।’

১২ ঘণ্টায় জায়রার ভেরিফাইড ইন্সটাগ্রামে তার পোস্টে ৮০ হাজার লাইক পড়েছে। দশ হাজার লোক কমেন্ট করে তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। টুইটার ও ফেসবুকে প্রতি মুহূর্ত তার ফলোয়ার বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে।

প্রসঙ্গত যে, ২০১৬ সালে ‘দঙ্গল’ সিনেমায় আমির খানের মেয়ের চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করেন জায়রা। এতে অভিনয় করে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড, ন্যাশনাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড-ন্যাশনাল চাইল্ড অ্যাওয়ার্ড ফর একসেপশনাল অ্যাচিভমেন্ট পেয়েছেন।