ইয়াবা পাচারে বাসের হেলপার ও সুপারভাইজার; কক্সবাজারের শহিদুল আটক

চট্টগ্রাম: লোহাগাড়ার পদুয়া বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭ হাজার ৭৫০ পিস ইয়াবাসহ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ এর সদস্যরা।

গ্রেফতার ব্যক্তির নাম শহিদুল ইসলাম (৫৫)। তিনি চকরিয়ার ফাসিয়াখালী নয়াপাড়া এলাকার মৃত আব্দুর রশিদের পুত্র।

সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাশকুর রহমান বলেন, বুধবার (৫ জুন) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে শাহ আমিন সার্ভিস পরিবহনের একটি বাসে তল্লাশি চালানো হয়। কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামগামী ওই বাস থেকে নেমে হেলপার শহিদুল ইসলাম ও সুপারভাইজার মো. হারুন পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া দিয়ে শহিদুলকে আটক করতে সক্ষম হলেও চকরিয়ার বাহারিয়াঘোনা এলাকার আব্দুর রশিদের পুত্র মো. হারুন পালিয়ে যায়।

Loading...

মো. মাশকুর রহমান জানান, পরবর্তীতে বাসের ভিতরে শহিদুল ইসলামের দেখিয়ে দেয়া স্থানে অভিনব কায়দায় লুকানো অবস্থায় এসব ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। বাসটি (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৪৩২৯) জব্দ করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটের আনুমানিক মূল্য ৩৮ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা।

জিজ্ঞাসাবাদে শহিদুল র‌্যাবকে জানিয়েছে, তারা বাসের হেলপার এবং সুপারভাইজার হিসেবে চাকরি করার আড়ালে এ ব্যবসা করছে। মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে যোগসাজশে কক্সবাজার থেকে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাচার করে আসছে।

শহিদুল ইসলামকে লোহাগাড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে এবং পলাতক আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছেন র‌্যাব কর্মকর্তা মো. মাশকুর রহমান।