৪ পুলিশ আহত,অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

টেকনাফে পুলিশের গুলিতে ২ মানবপাচারকারী নিহত

গিয়াস উদ্দিন ভুলু, কক্সবাজার জার্নাল

টেকনাফে পুলিশ ও মানবপাচারকারী চক্রের সাথে কথিত এক বন্দুকযুদ্ধ সংঘটিত হয়েছে। এতে মানবপাচারে জড়িত দুই রোহিঙ্গা দালাল নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থল তল্লাশী করে দেশীয় তৈরী দু’টি অস্ত্র ও ১০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

জানা যায়,১৪ মে সোমবার ভোর রাতে বাহারছড়া শামলাপুর মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন ঝাউবাগান বীচ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ সিবিজে কে জানান,একদল রোহিঙ্গা মানবপাচারে জড়িত দালাল চক্রের সহযোগীতায় অবৈধ ভাবে সাগরপথে মানবপাচারের চেষ্টা করছিল।

সেই গোপন সংবাদের তথ্য অনুযায়ী পুলিশ অভিযানে গেলে মানবপাচারকারী দলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। পরে পুলিশও আত্বরক্ষার্থে পাল্টাগুলি চালায়।

উক্ত ঘটনায় মানবপাচারে জড়িত দুই রোহিঙ্গা নিহত হয়। নিহতরা হল, টেকনাফ বাহারছড়া শামলাপুর ইউনিয়ন ২৩ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা আব্দুর রহিমের পুত্র আজিম উল্লাহ(২০) ও জামতলী ১৫ নং রোহিঙ্গা কাম্পের বাসিন্দা মৃত রহিম আলীর পুত্র আব্দুস সালাম(৫২)।

এদিকে পুলিশ মৃতদেহ গুলো উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট তৈরী করার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। পুলিশের দাবী গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হওয়া দুইজন মানবপাচারকারী দলের সক্রিয় সদস্য। মৃতদেহ গুলোর পাশ থেকে দু’টি দেশীয় তৈরী অস্ত্র ও ১০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি উক্ত ঘটনায় এএসআই জহিরুল,কনেস্টবল মোবারক হোসেন,খাইরুল,মানিক মিয়া আহত হয়েছে।