বাইক মিস্ত্রি সুমন ইয়াবাসহ চট্টগ্রামে আটক

ডেস্ক রিপোর্ট :

ইয়াবা পাচার সিন্ডিকেটের সদস্য কোটবাজারের বাইক মিস্ত্রি সুমন বড়ুয়া ইয়াবাসহ চট্টগ্রামে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে। গত শুক্রবার বিকেলে ২০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ চট্টগ্রাম আরাকান সড়কের কালুরঘাট সেতুর পাশে পুলিশ তাকে আটক করেছে।

আটক সুমন বড়ুয়া উখিয়ার মধ্য রত্না পালং এলাকার শান্ত বড়ুয়ার ছেলে।

রাতারাতি টাকাওয়ালা বনে যাওয়া ইয়াবা ব্যবসায়ী সুমন আটক হওয়ায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

গ্রামবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, সুমন বড়ুয়া কোটবাজারের উত্তর পাশে বাইক মেরামতের দোকান করার আড়ালে নিয়মিত ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যায়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে মরণ নেশা মাদকের ব্যবসা করে রাতা রাতি কোটি টাকার মালিক বনে গেছে এক সময়ের সামান্য কর্মচারীর কাজ করা এ সুমন। অবৈধ ব্যবসা করে কি পরিমান টাকা আয় করেছে সে নিজেও জানেনা। লেখাপড়া না জানা এ ব্যক্তির রয়েছে দেশ ব্যাপি ইয়াবার নেটওয়ার্ক।

বর্তমানে সে কোটি টাকার মালিক ও কয়েকটি জমি এবং গাড়ির মালিক। অথচ এক সময়ে তার নুন আনতে পান্তা ফুরায় এই অবস্থা ছিল তার। শুধু তাই নয় সে বাইক মিস্ত্রির কাজ করার পাশাপাশি বিভিন্ন চোরাই মটর সাইকেল এনে বিক্রি করে করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অনুসন্ধান করে জানা যায়, তার সাথে বিভিন্ন ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সাথে যোগসাজশ রয়েছে। সাগর পথ দিয়ে ট্রলার যোগে বিভিন্ন সময়ে ইয়াবা ট্যাবলেট পাচার করে আসছে। মিয়ানমার হতে ইয়াবার চালান চট্রগ্রামের হালি শহর, বন্দর টিলা, কর্নফুলীর মোহনা ও পটিয়ার মাজ্যাইয়ার টেক পয়েন্ট এবং ঢাকার সদর ঘাট খুলনা বন্দর দিয়ে ইয়াবার চালান বিক্রি করে আসছে। মিয়ানমারের মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে তাদের সরাসরি সখ্যতা রয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, মধ্যম রত্না পালং গ্রামের সুমন বড়ুয়া সামান্য বাইক মিস্ত্রি থেকে হঠাৎ কোটি পতি খাতায় নাম চলে আসায় রীতিমত স্বপ্নে পাওয়া যেন আলা উদ্দিনের চেরাগ। গত শুক্রবার কালুরঘাট সেতুর পাশে বিশেষ চেকপোস্টে তিনি ইয়াবাসহ আটক হওয়ার পর তখনই ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত বিষয়টি ফাঁস হয়ে যায়।