কক্সবাজারে সচেতনতামূলক অভিযান অব্যাহত: তিন দোকানদারকে অর্থদন্ড

সাইফুল ইসলাম,কক্সবাজার জার্নাল ◑
মহামারি ‘করোনা ভাইরাস’ থেকে রক্ষার্থে কক্সবাজার পৌর এলাকার বিভিন্ন জায়গায় সচেতনতামূলক অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

অভিযান চলাকালে রাস্তার উভয় পাশে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে খোলা রাখা বেশ কয়েকটি দোকান (ইলেকট্রনিক্স, হার্ডওয়্যার, লাইব্রেরী ও ফার্নিচার এর দোকান) বন্ধ করে দেয়া হয়।

সমিতিপাড়ায় চায়ের দোকানি খোলা রাখার অপরাধে ১ জনকে ১০০০ টাকা এবং সরকারি নির্দেশ অমান্যের অপরাধে দুইজনকে ১০০০ টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়। জনস্বার্থে এবং নিজের ও পরিবারের স্বার্থে রাস্তায় ঘোরাফেরা করা লোকদের একান্ত প্রয়োজন ছাড়া নিজ নিজ বাসস্থানে অবস্থান করার নির্দেশনা প্রদান করেছেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ শাহরিয়ার মুক্তার। সহযোগিতায় ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যবৃন্দ।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) এই দণ্ড প্রদান করেছেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ শাহরিয়ার মুক্তার।

অভিযানকালে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, করোনা সংক্রমণ থেকে জনগণকে বাঁচাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় ও জনসমাগম কমাতে প্রশাসনের বিভিন্নমুখী তৎপরতা চলছে। কিন্তু সমিতিপাড়া বাজারে কোনভাবেই জনসমাগম কমছে না। যেন কানে যাচ্ছে না প্রশাসনের প্রচারনা। দিনরাত আড্ডা বসে দোকানপাটে।

সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ শাহরিয়ার মুক্তার বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে আত্মরক্ষায় প্রশাসন নিয়মিত প্রচারণা চালাচ্ছে। মানুষকে সতর্ক করছে। দোকানপাট বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়েছে।

তবুও সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে দোকানপাট খোলার অভিযোগে অভিযান চালানো হয়।
প্রাথমিকভাবে সতর্কতামূলক তিনজনকে জরিমানা করা হয়েছে।