কক্সবাজার থেকে চুরি যাওয়া ৪২টি মোবাইলসহ হোসাইন আটক

ডেস্ক রিপোর্ট ◑ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি এড়াতে রাজধানী ঢাকায় চুরি যাওয়া মোবাইল ফোন বিক্রি হচ্ছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে। এমনকি কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে চুরি হওয়া মোবাইলও চলে যায় চট্টগ্রামের চোরাই মোবাইল বাজারে।

ঢাকা ও কক্সবাজার থেকে চুরি যাওয়া ৪২টি মোবাইলসহ মোহাম্মদ হোসাইন নামে এক যুবককে আটকের পর বেরিয়ে এসেছে এসব তথ্য। কোতোয়ালি থানা পুলিশ নগরীর জলসা শপিং কমপ্লেক্সে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। মূলত ওই মার্কেটে মোবাইল ফোনের দোকানের আড়ালে চোরাই মোবাইলের ব্যবসা ছিল মোহাম্মদ হোসাইনের।

কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহসিন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মোহাম্মদ হোসাইন স্বীকার করেছে ঢাকার বেশক’টি মোবাইল চোর চক্রের সঙ্গে ঘনিষ্ট যোগাযোগ রয়েছে তার। যারা মোবাইল চুরি করে তার কাছে পাঠিয়ে দেয়। এরপর হোসাইন মোবাইলগুলো কয়েকদিন সুইচ অফ রাখে। পরবর্তীতে সুযোগ বুঝে জেলার বিভিন্ন স্থানে তার সহযোগীদের দোকানে পাঠিয়ে দেয় বিক্রির জন্য।

পুলিশ জানায়, তথ্য-প্রযুক্তির মাধ্যমে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী চুরি যাওয়া মোবাইলের অবস্থান শনাক্ত করতে পারে। যে কারণে চোরের দল আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে ফাঁকি দিতে ঢাকার মোবাইল চট্টগ্রামে বিক্রি করে। দূরবর্তী অবস্থান হলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অনেক সময়ে চুরি যাওয়া মোবাইল উদ্ধারে তেমন আগ্রহী হয় না। আর সে সুযোগকে তারা কাজে লাগানোর চেষ্টা করে। এমনকি কক্সবাজার জেলার টেকনাফ ও উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে মোবাইল চুরি করে চোরের দল চট্টগ্রামের এই সিন্ডিকেটের কাছে নামমাত্র মূল্যে বিক্রি করে যায়। গ্রেফতারকৃত মোহাম্মদ হোসাইনের কাছ থেকে এই চক্রের বেশ ক’জন সদস্যের নাম পেয়েছে বলে জানিয়েছে ওসি মোহাম্মদ মহসিন।